Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
ইমরান খান

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এর ইঙ্গিতে জানা গেল এবার নাকি পাকিস্তানও বড়লোক হবে কারন পাকিস্তানে নাকি হদিশ মিলতে চলেছে বিশাল এক প্রাকিতিক তেল ও গ্যাসের ভাণ্ডার। অবশ্য এ ভান্ডারের খোঁজ পেলে পাকিস্তানের অর্থনৈতিক সংকট অনেকটাই কেটে যাবে বলে ধারনা ইমরান খানের। গত বৃহস্পতিবার ইমরান খান বলেন, “আমি সকলের কাছে অনুরোধ করছি তাঁরা যেন প্রার্থনা করেন পাকিস্তান যাতে যথেষ্ট পরিমাণ প্রাকৃতিক সম্পদের অধিকারী হয়। কনসোর্টিয়াম সমুদ্রতীরে যে খনন প্রক্রিয়া চলছে , তা ঘিরে নাকি তাদের গভীর প্রত্যাশা তৈরি হয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, সমুদ্রতীরে তেলের জন্য খনন প্রক্রিয়া কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে এসে পড়েছে এবং বড়সড় একটা খোঁজ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ইমরান বলেছেন, “বিষয়টি নাকি প্রায় তিন সপ্তাহ পিছিয়ে গেছে, তবে সংস্থার তরফ থেকে যে ইঙ্গিত মিলেছে, তাতে আমাদের জলভাগে বড়সড় ভাণ্ডার পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এবং সত্যিই যদি তেমন হয়, তাহলে পাকিস্তানের অবস্থান সম্পূর্ণ বদলে যাবে।”

সমুদ্রের তীরবর্তী কেকরা এক নামক এলাকায় জানুয়ারি মাস থেকেই সমুদ্রের ২৩০ কিলোমিটার অভ্যন্তরে গভীর কূপ খনন করছে তারা। সংবাদপত্রের সম্পাদক এবং প্রবীণ সাংবাদিকদের সঙ্গে এক ঘরোয়া আলোচনায় পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান এ কথা জানান। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কোনও তথ্য তিনি দেননি। এ ব্যাপারে এক্সনমোবিল এবং আন্তর্জাতিক তৈল খনন কোম্পানি ইএনআই-ও কোন কথা যানাননি।

প্রায় এক দশক আগে ইএনআই এবং এক্সনমোবিল পাকিস্তানের আরব সাগরের তীরবর্তী এলাকায় গ্যাসের জন্য খনন চালাচ্ছিল। আরও বেশ কিছু পশ্চিমি সংস্থা এ কাজ শুরু করলেও এক দশক আগে জঙ্গিদের সন্ত্রাসের কারণে কাজ ছেড়ে চলে যেতে বাধ্য হয়েছিলেন তারা। গত বছর পাকিস্তানি জলভাগে বিপুল তৈলভাণ্ডারের সম্ভাবনার কথা উঠে এসেছিল কয়েকটি সমীক্ষায়। এরই সূত্রে প্রায় এক দশক পরে পাকিস্তানে ফেরে এক্সনমোবিল। পাক প্রধানমন্ত্রীর বিশ্বাস, বড়সড় তৈলখনির সন্ধান মিললে পাকিস্তানের আর্থিক সমস্যা অনেকটাই সমাধিত হবে এবং প্রগতির পথও অনেকটা সহজ হয়ে যাবে। ইমরানের কথায়, বন্ধু দেশ সংযুক্ত আরব আমিরশাহি, চিন এবং বিশেষত সৌদি আরবের সহায়তায় এ পরিস্থিতির উন্নতি ঘটে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here